ভেরাইজনের কাছে মাত্র ৪.৮ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে বিক্রি হয়ে গেল ইয়াহু !


হ্যাঁ আপনি ঠিকি শুনেছেন,
পানির দামে বিক্রি হয়ে গেল ইয়াহু !
মাত্র  ৪.৮ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে ভেরাইজনের কাছে বিক্রি হয়ে গেল বিশ্ব বিখ্যাত কোম্পানি ইয়াহু ! 
অথচ এক সময় এই ইয়াহুর বাজার মূল্য ছিল ১২৫ বিলিয়ন ডলারের চেয়েও বেশী !

আসুন একটু ফ্ল্যাশব্যাকে যাই, 
গুগল যখন ছোট পরিসরে ছিল তখন ল্যারি পেইজ ও সের্গেই বিন গুগলকে ইয়াহুর কাছে 
বিক্রি করতে চেয়েছিল। সে সময় ইয়াহুর সিইও ছিলেন সেমেল। 
একদিন ল্যারি পেইজ ও সের্গেই বিন ইয়াহুর সিইও এর সঙ্গে ডিনারে একত্রিত হন। 
ল্যারি পেইজ ও সের্গেই বিন গুগলের মূল্য নির্ধারণ করেন ১ বিলিয়ন ডলার। 
কিন্তু সেমেল সে সময় তাতে রাজি হননি। পরবর্তীতে সেমেল ১ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে 
গুগল কিনতে রাজি হন এবং এ উদ্দেশ্যে তারা আবার ডিনারে একত্রিত হন। 
সে সময় ল্যারি পেইজ ও সের্গেই বিন পুনরায় গুগলের দাম নির্ধারণ করে বলেন 
গুগল কিনতে হলে তাদের ৩ বিলিয়ন ডলার প্রদান করতে হবে। অন্যথায় তারা গুগল বিক্রি করবেন না। 
সে সময় তাদের মধ্যে আর কোনো কথাবার্তা হয়নি। 

অথচ ২০১৬ সাথে এসে আজ গুগলের বর্তমান মার্কেট ভ্যালু ৫১৭.১২ বিলিয়ন ডলার ! 
আর সেই নামীদামী ইয়াহুর বর্তমানে বিক্রি হল মাত্র  মাত্র  ৪.৮ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে ! 
বর্তমানে ইয়াহুর এই করুন দশা দেখে আমার নিজেরই খুব খারাপ লাগছে....../ 

এখান থেকে আমাদের অনেক কিছুই শেখার আছে, 
বর্তমান যুগ প্রতিযোগিতার যুগ, এই যুগটা খুব দ্রুত পরিবর্তনশীল।
নিজেকে ও নিজের যোগ্যতাকে নিয়মিত আপডেট না রাখতে পারলে 
বর্তমানে আপনি যত ভাল অবস্থানেই থাকুন না কেন এক সময় হারিয়ে যাবার সম্ভাবনা খুব বেশী ! 

আজ যাকে আপনি তুচ্ছ ভাবছেন কাল সে হয়তো এমন বড় কোন কাজ করবে যা আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না, হয়তো একদিন সে আপনার চেয়ে অনেক বেশী যোগ্যতা সম্পন্ন হতে পারে, সফল হতে পারে।
সবাইকে তার ভাল কাজ গুলোর মূল্যায়ন করতে শিখুন, হোকনা তার কাজটা ছোট তাতে কি? 
এক সময় তার ছোট কাজটাই আপনার বড় কোন উপকারে আসতে পারে....../

Share this

Related Posts

Previous
Next Post »